খেলা ফুটবল

জাতীয় দলে ডাক পাননি ডি-মারিয়া

বিশ্বকাপ বাছাইপর্বের জন্য ঘোষিত আর্জেন্টিনা স্কোয়াডে জায়গা হয়নি আনহেল দি মারিয়ার। অথচ প্যারিস সেইন্ট জার্মেইয়ের (পিএসজি) জার্সিতে দুর্দান্ত সময় কাটছে এই অ্যাটাকিং মিডফিল্ডারের।

জাতীয় দলে ডাক না পাওয়ায় তাই ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া জানালেন পিএসজি তারকা।

শুক্রবার (১৯ সেপ্টেম্বর) বিশ্বকাপ বাছাইকে সামনে রেখে স্কোয়াড ঘোষণা করেছেন প্রধান কোচ স্কালোনি। ইকুয়েডর ও বলিভিয়ার বিপক্ষে দুই ম্যাচের জন্য বাছাই করা ৩০ সদস্যের স্কোয়াডে দি মারিয়া ছাড়াও জায়গা হয়নি সার্জিও আগুয়েরোর।

লিওনেল মেসি, লওতারো মার্তিনেস এবং পাওলো দিবালাদের জায়গা হয়েছে স্কালোনির দলে। কিন্তু পিএসজির হয়ে গত মৌসুমে চ্যাম্পিয়নস লিগের ফাইনাল খেলেও আর্জেন্টাইন কোচের নজরে পড়েননি দি মারিয়া। আগুয়েরো ছিটকে গেছেন ইনজুরিতে। কিন্তু দি মারিয়ার সেই সমস্যাও নেই। তারপরও দলে ডাক না পাওয়ায় ক্ষুব্ধ প্রতিক্রিয়া দেখালেন তিনি।

গত মৌসুমে পিএসজির হয়ে সব প্রতিযোগিতা মিলিয়ে ১২ গোল ও ২৩ অ্যাসিস্ট করা দি মারিয়া মনে করেন, এখনও জাতীয় দলে খেলার সব যোগ্যতাই আছে তার। ‘ক্লস কন্তিনেন্তাল’ নামের এক রেডিও শো’তে ৩২ বছর বয়সী ফুটবলার বলেন, ‘আমি (ডাক না পাওয়ার) কোনো কারণ খুঁজে পাচ্ছি না। আমি ভাষা হারিয়ে ফেলেছি। ’

তিনি আরও বলেন, ‘আর্জেন্টিনা জাতীয় দল আমার কাছে সবচেয়ে বেশি গুরুত্বপূর্ণ। আমি যদি পিএসজিতে রক্ত পানি করা পরিশ্রম করি, তা শুধুমাত্র জাতীয় দলে সুযোগ পাওয়ার জন্য। ভালো অবস্থায় থাকা সত্ত্বেও ডাক না পাওয়ার ব্যাপারটা আমি কিছুতেই বুঝতে পারছি না। ’

তবে এবার ডাক না পেলেও এখনই হাল ছেড়ে দিচ্ছেন না দি মারিয়া, ‘তারা আমাকে ডাকতে চায় না বলেই ডাকেনি। কিন্তু আমি আর্জেন্টিনা জাতীয় দলে সুযোগ পেতে লড়াই চালিয়ে যাব। আমি কি ৩২ বছর বয়সেই বুড়িয়ে গেছি? অনেকে অবশ্য তাই বলে, কিন্তু আমি ৩২ বছর বয়সেও আগের মতোই দৌড়াতে পারি। আমি যে বুড়িয়ে যাইনি তা প্রতি ম্যাচেই দেখিয়ে যাচ্ছি এবং আমি নেইমার ও এমবাপ্পের লেভেলে খেলতে পারি। ’

চলতি সপ্তাহের শুরুতে নিসের বিপক্ষে পিএসজি ৩-০ গোলে জেতার পর সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমে জাতীয় দলে ডাক না পাওয়া নিয়ে মুখ খোলেন দি মারিয়া। এক ইনস্টাগ্রাম পোস্টে তিনি লেখেন, ‘যা কিছুই ঘটুক না কেন, আমি হাত নামাবো না। আমি আগেও হাল ছাড়িনি, এখনও ছাড়ব না। আমি সবসময় গোল এবং স্বপ্ন পূরণের জন্য যুদ্ধ করেছি, সামনেও মাথা উঁচু রেখে লড়াই চালিয়ে যাব। ’

এদিকে এ মাসের মাঝামাঝিতে লিগ ওয়ানে মার্সেইর বিপক্ষে চরম উত্তেজনা ছড়ানো ডার্বি ম্যাচে ডিফেন্ডার আলভারো গনসালেসের গায়ে থুথু নিক্ষেপ করে চার ম্যাচ নিষিদ্ধ হয়েছেন দি মারিয়া। সেই সময় পিএসজি তারকা নেইমারও সেই গনসালেসের মাথার পেছনে হাত দিয়ে আঘাত করে লাল কার্ড দেখেছিলেন।

তবে দি মারিয়ার থুথু মারার ঘটনাটি সেদিন রেফারি বা ভিএআর সবকিছু থেকেই এড়িয়ে যায়। কিন্তু ম্যাচের পরে মার্সেই কোচ অভিযোগ করেছিলেন বলেই তদন্ত শেষে কাল নিষিদ্ধ করা হয়েছে এই মিডফিল্ডারকে। তবে দি মারিয়ার নিষেধাজ্ঞার ব্যাপারে থুথু মারার কথা উল্লেখ করেনি কর্তৃপক্ষ।

দি মারিয়ার এই নিষেধাজ্ঞা শুরু হবে ২৯ সেপ্টেম্বর থেকে। ফলে এই সপ্তাহে লিগের ম্যাচে রেঁসের বিপক্ষে খেলতে পারবেন তিনি। তবে পরবর্তী চার ম্যাচে যথাক্রমে অঁজে, নিম, দিজঁ ও নঁতের বিপক্ষে মাঠের বাইরে থাকতে হবে। আর রেঁনেসের বিপক্ষে ৮ নভেম্বর ফিরতে তার কোনো বাধা থাকবে না।

Leave a Reply

Your email address will not be published.